মহরমে এবারেও ঘোরানো হল না তাজিয়া দুবরাজপুরের ইসলামপুরে - G Tv { Go Fast Go Together)
মহরমে এবারেও ঘোরানো হল না তাজিয়া দুবরাজপুরের ইসলামপুরে

মহরমে এবারেও ঘোরানো হল না তাজিয়া দুবরাজপুরের ইসলামপুরে

করোনা ভাইরাসের জন্য এবছরও বীরভূম জেলার দুবরাজপুরের ইসলামপুরে ঘোরানো হল না মহরমের তাজিয়া। হিজরি সনের প্রথম মাস হচ্ছে মহরম মাস। আর এই মহরম মাসের ১০ তারিখে কারবালার মরু প্রান্তরে এজিদ বাহিনী হজরত ইমাম হোসেনকে চক্রান্ত করে হত্যা করে। তাই এই দিনে হজরত ইমাম হোসেনের এবং কারবালার মরু প্রান্তরে যাঁরা শহিদ হয়েছিলেন তাঁদের স্মৃতির উদ্দেশ্যেই মহরম পালন করা হয়। কিন্তু গত বছরের মতো এ বছরও করোনা ভাইরাসের জন্য বিভিন্ন সম্প্রদায়ের বিভিন্ন উৎসব বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে। তাই আজ দুবরাজপুরের ইসলামপুরে কোনো তাজিয়া ঘোরানো হল না। প্রতিবছর এই এলাকায় ১৯ টি তাজিয়া বের হত এবং তাজিয়াগুলো ইসলামপুর থেকে বের হয়ে গোটা দুবরাজপুর শহর পরিক্রমা করে পুনরায় ফিরে আসতো ইসলামপুরে। কিন্তু করোনা ভাইরাসের জন্য এবারও তা হল না। প্রশাসনের নির্দেশ অনুযায়ী কোনো রকম ভীড় করা যাবে না বলে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কিন্তু রেওয়াজ অনুযায়ী প্রতিটি আস্তানায় তাজিয়া বানানো হয়েছে। এদিন দুবরাজপুরের ইসলামপুর সদর মসজিদের পেশ ইমাম আনোয়ার হোসেন জানান, প্রশাসনের নির্দেশ মতো আমরা এ বছরও মহরম পালন করছি। আগে যেমন ভীড় করে শোভাযাত্রা করা হত কিন্তু করোনা অতিমারীর জন্য সমস্ত জিনিষ বন্ধ করা হয়েছে। পাশাপাশি ইসলামপুর উৎসব কমিটির সভাপতি তথা দুবরাজপুর পৌরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলর সেখ নাজির উদ্দিন জানান, করোনা বিধি মেনে এবং সরকারের নির্দেশ মতোই আমরা মহরম পালন করছি। আমাদের ধার্মিক আচার অনুষ্ঠান ছাড়া আমরা আর কিছু করছি না। মাতম, হায়দারী, খেলাধুলা এগুলো বন্ধ রাখা হয়েছে। শুধুমাত্র প্রতীকী হিসেবে ইসলামপুরের ১৯ টি তাজিয়া রাখা হয়েছে। তিনি ছাড়াও দুবরাজপুর পৌরসভার প্রাক্তন উপ পৌরপ্রধান তথা উৎসব কমিটির সদস্য মির্জা সৌকত আলী জানান, প্রতিবছর মহরম উপলক্ষে ইসলামপুর থেকে দুবরাজপুরের সানাই লজ সংলগ্ন গড় দরজায় একটি শোভাযাত্রা করে তাজিয়া গুলো নিয়ে যাওয়া হয় সেখানে। কিন্তু প্রশাসনের নির্দেশ মতো এগুলো বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Translate »