হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত জাতীয় পুরস্কারজয়ী অভিনেত্রী সুরেখা সিক্রি
হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত জাতীয় পুরস্কারজয়ী অভিনেত্রী সুরেখা সিক্রি

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত জাতীয় পুরস্কারজয়ী অভিনেত্রী সুরেখা সিক্রি

শুক্রবার সকালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন। ৭৫ বছরের অভিনেত্রীর প্রয়াণের খবর জানান তাঁর ম্যানেজার।২০২০ সালে ব্রেন স্ট্রোক হওয়ার পর থেকেই অসুস্থ ছিলেন তিনি।১৯৪৫ সালে উত্তরপ্রদেশে জন্ম সুরেখা সিক্রির। তাঁর সত্‍-বোন মানারা সিক্রি ওরফে পারভিন মুরাদ নাসিরউদ্দিন শাহর প্রথম স্ত্রী। ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামার ছাত্রী সুরেখা কখনও সিনেমার নায়িকা হতে চাননি। চেয়েছিলেন শুধু অভিনেত্রী হয়ে চরিত্রকে বিশ্বাসযোগ্য করে তুলতে। তাই করেছেন ‘কিসসা কুর্সি কা’, ‘তামস’, ‘সমীর ল্যাংড়ে পে মত রো’, ‘সর্দারি বেগম’, ‘মাম্মো’, ‘জুবেইদা’ থেকে ‘বাধাই হো’র মতো সিনেমায়। টেলিভিশনেও চুটিয়ে অভিনয় করেছেন ‘সাঞ্ঝা চুলাহ’, ‘সিআইডি’, ‘বালিকা বধূ’, ‘সাত ফেরে’র মতো একাধিক ধারাবাহিকে।’মাম্মো’, ‘তামস’ আর ‘বাধাই হো’-র জন্য তিনবার সেরা-সহ অভিনেত্রীর জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন সুরেখা সিক্রি। তৃতীয়বার ‘বাধাই হো’-র জন্য জাতীয় পুরস্কার নিতে গিয়েছিলেন হুইল চেয়ারে। কারণ কিছুদিন আগেই মহাবালেশ্বরে শুটিং করতে গিয়ে মাথায় চোট পেয়েছিলেন অভিনেত্রী। তারপর থেকেই কাজ করতে পারছিলেন না। বাড়িতেই নার্সের তত্ত্বাবধানে ছিলেন। সেখানেই ফের ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। জুস পান করতে করতেই তাঁর স্ট্রোক হয়। সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় অভিনেত্রীকে। পরে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পরও শয্যাশায়ী ছিলেন। এমন পরিস্থিতিতেই সোমবার সকালে হৃদরোগে আক্রান্ত হন ৭৫ বছরের অভিনেত্রী। তাঁর প্রয়াণে শোক প্রকাশ করেছেন সিনে অনুরাগী ও তারকারা।

Leave a Reply

Translate »