রানিনগরের হালাদারপাড়া ও পালপাড়ার এই দুটো গ্রামের যৌথ উদ্যোগে পালিত হয় এই দুর্গাপুজো
রানিনগরের হালাদারপাড়া ও পালপাড়ার এই দুটো গ্রামের যৌথ উদ্যোগে পালিত হয় এই দুর্গাপুজো

রানিনগরের হালাদারপাড়া ও পালপাড়ার এই দুটো গ্রামের যৌথ উদ্যোগে পালিত হয় এই দুর্গাপুজো

আনুমানিক ৩১২ বছর আগে মজুমদার পরিবারের লোকজনেরা শুরু করেছিলেন এই দুর্গা পুজো । এলাকার প্রাচীন দুর্গাপুজোর মধ্যে এটি অন্যতম বলে জানাচ্ছেন পুজো উদ্যোক্তারা ।
পুজোর দিন গুলিতে এলাকার কলাকুশলীদের নিয়ে যাত্রার আয়োজন করা হত । তাতে অংশগ্রহণ করত এলাকা খ্যাত অশোক হালদার ,তারক সরকার এর মত শিল্পীরা ।  তখন কলকাতার শিল্পীদের সাথেও সমানে টক্কর দিত তারা বলে জানাচ্ছেন এলাকাবাসী । যদিও সময়ের সাথে সাথে মানুষের রুচি পরিবর্তনের মাধ্যমে সেসব যাত্রাগান এখন আর হয়না বললেই চলে ।তবুও কোনো অংশে সেই পুজোর মাহাত্ম কমেনি ।  পুজোকমিটির এক সদস্যের কথায় ,রানিনগরের অন্যতম সেরা পুজো এখানেই হয় ।তার কথা অনুযায়ী শুধু নিজের গ্রাম নয় এলাকার অন্নান্য গ্রাম যেমন কাতলামারি ,শেখপাড়া ,রানিনগর থেকেও মানুষজন আসে এই  দুর্গাপুজো উপলক্ষে ।
পুজো কমিটির সেক্রেটারি  পীযুষ মন্ডল জানিয়েছেন -” এলাকার অন্যতম পুরোনো পুজো হলেও কোনো প্রকার সরকারি অনুদান আমরা পায়নি । গ্রাম বাসীর সাহায্য ও চেষ্টার জোরেই এত দিন বাদেও এই দুর্গা পুজো টিকে রয়েছে ।” এলাকায় এই পুজো কে ঘিরে বেশ সুনাম আছে বলে জানান এলাকাবাসী । পালপাড়া গ্রামের বাসিন্দা  তারক মজুমদার জানায় -” অনেক আগে  আমাদের পরিবারের হাত ধরেই এই দুর্গা পুজোর সূত্রপাত । এখন পর্যন্ত পুজোর দিন গুলিতে কোনো রকম সমস্যা ছাড়াই পুজো হয়ে থাকে । কোনো রকম পুলিশ প্রশাসনের দরকার পড়েনি আজ পর্যন্ত ।”

Leave a Reply

Translate »